শিক্ষার পরিধি বলতে কি বোঝ ? শিক্ষার মূল্যায়নের পরিধি আলোচনা করো -

 শিক্ষার পরিধি বলতে কি বোঝ ? শিক্ষার মূল্যায়নের পরিধি আলোচনা করো - Questions & Answer Of Education


শিক্ষার পরিধি বলতে কি বোঝ ? শিক্ষার মূল্যায়নের পরিধি আলোচনা করো - Questions & Answer Of Education

শিক্ষায় মূল্যায়ন কি



মূল্যায়ন বলতে কি বোঝ?  শিক্ষায় মূল্যায়নের পরিধি আলোচনা করো।

          লিখেছেন - অধ্যাপক তন্ময় নন্দী



উত্তর -

    ভূমিকা:  শিক্ষাক্ষেত্রে মূল্যায়নের বিশেষ তাৎপর্য এবং গভীর গুরুত্বের বিষয়টি আজ সর্বজনবিদিত। শিক্ষাকে গতিশীল জীবন্ত প্রক্রিয়া হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে, শিক্ষাধারার মধ্য দিয়ে ব্যক্তির জীবনে কাম্য ও বাঞ্ছিত আচরণ ধারা প্রকৃত পথে মূর্ত করে তুলতে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীর অর্জিত জ্ঞান, বোধ, সামর্থ্য, দক্ষতা, দৃষ্টিভঙ্গি, আগ্রহ, লক্ষ্যভিত্তিক সঠিক পথে পৌঁছালো কিনা তা জানতে এবং শিক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের জীবনে উদ্দেশ্য মাফিক পরিবর্তন ও পরিমার্জন এলো কিনা তা বুঝে নিতে মূল্যায়নের প্রয়োজন।

   মূল্যায়ন:  মূল্যায়ন বলতে আজকাল একটি বিরতিহীন প্রক্রিয়া বলে  ধরা হয় যেটি শিক্ষাব্যবস্থা ও শিক্ষার লক্ষ্যের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। মূল্যায়ন একদিকে শিক্ষার্থীর পঠন-পাঠনের উপর নজর রাখে অপরদিকে শিক্ষকদের শিক্ষাদান পদ্ধতির উপরও বিশেষ জোর দেয়।

    কুইনেল ও হ্যান্না মূল্যায়নের যে স্বরূপ বিশ্লেষণ করেছেন তা হল -

১) মূল্যায়ন শিশুর আচরণের সামগ্রিক বিবেচনার কৌশল নির্ধারণ করে।
২)  শিশু নিয়ত পরিবর্তনশীল বিকাশের প্রতি গুরুত্ব দেয়।
৩) এটি একটি গতিশীল প্রক্রিয়া।
৪) শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবক এই তিনের  সহযোগিতায় মূল্যায়ন প্রক্রিয়া নির্ভর করে।

      মনোবিদ ওয়েসলে বলেন, মূল্যায়ন হল এমন সব প্রচেষ্টা যার সাহায্যে আকাঙ্খিত উদ্দেশ্য গুলি পরিমাণগত ও গুণগতভাবে কতখানি বাস্তবায়িত হয়েছে তা পরিমাপ করে। নৈর্ব্যক্তিক ও ব্যক্তিগত পর্যবেক্ষণ উভয় এই প্রচেষ্টার অন্তর্গত।

       অধ্যাপক শ্রীনিবাস এর মতে- মূল্যায়ন হচ্ছে-
ক) ব্যক্তির সামগ্রিক বিকাশের মূল্য ও মাত্রা নির্ধারণ, (খ) ব্যক্তির বৌদ্ধিক, সামাজিক ও অন্যান্য বিকাশের ধারা নির্ণয়ের জন্য ভিন্ন ভিন্ন ক্ষেত্রে সামগ্রিক পরিমাপ এবং (গ) শিক্ষার উদ্দেশ্য, পদ্ধতি, পরিবেশ ও শিক্ষার্থীদের প্রগতির বিচার-বিশ্লেষণের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ গতিশীল সামগ্রিক পরিমাপ প্রক্রিয়া।

  মূল্যায়নের পরিধি: মূল্যায়নের পরিধি অত্যন্ত ব্যাপক। বর্তমানে মূল্যায়ন কেবলমাত্র শিক্ষার্থীর অগ্রগতি বিচার করে না বরং সমগ্র শিক্ষা পদ্ধতির প্রতিটি উপাদানের পরিবর্তনের মূল্যায়ন করে থাকে।

   নিম্নে বিভিন্ন ক্ষেত্রে মূল্যায়নের পরিধি সম্পর্কে আলোচনা করা হল -

    ১) শিক্ষার উদ্দেশ্য: বিদ্যালয়ের বয়সের শিক্ষার্থীদের বিকাশ গত বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী শিক্ষার উদ্দেশ্য নির্ধারণ করা মূল্যায়নের একটি প্রধান কাজ। শিক্ষার নির্ধারিত উদ্দেশ্যগুলি, শিক্ষার্থীর আচরণের আকাঙ্ক্ষিত পরিবর্তন কতখানি ঘটেছে তা নির্ধারণ করা মূল্যায়নের পরিধির অন্তর্গত।

      ২) পাঠ্যক্রম: বর্তমান পাঠক্রম বৈচিত্র্যপূর্ণ। সমস্ত শিক্ষাক্ষেত্রে পাঠ্যক্রম শিক্ষার্থীকে অভিজ্ঞতা অর্জনে প্রভাবিত করে। এই পাঠ্যক্রমের যথার্থতাও মূল্যায়নের মাধ্যমে জানা যায়। তাই পাঠ্যক্রমের বিজ্ঞানসম্মত গঠন ও পুনর্বিন্যাস মূল্যায়নের পরিধি অন্তর্গত।

    ৩) শিক্ষা- শিক্ষণ পদ্ধতি: প্রচলিত নির্দিষ্ট শিক্ষাদান পদ্ধতির মধ্যে কতখানি পরিবর্তন আনতে হবে বা শিক্ষার্থীর মধ্যে সুস্থভাব এবং সঠিক মাত্রায় পরিবর্তন ঘটাতে হলে পাঠদান পদ্ধতির আরো উন্নতি সাধন কিভাবে করা যায় তা নির্দেশ করা মূল্যায়নের পরিধি অন্তর্গত।

    ৪) নির্দেশনা: শিক্ষার্থীর দক্ষতা, আগ্রহ ও মনোযোগ ইত্যাদির মাধ্যমে ভবিষ্যতের শিক্ষামূলক ও বৃত্তিমূলক নির্দেশনা দান করা যায়। বর্তমানে শিক্ষকরা শিক্ষাদানের সঙ্গে সঙ্গে উপরিউক্ত নির্দেশনাগুলো কাজ করে থাকে।

Questions & Answer Of Education


  ৫) শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ: শিক্ষা প্রক্রিয়া কেবলমাত্র শিক্ষার্থীর বর্তমান অবস্থা নিয়ে আলোচনা করে না, বর্তমান অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ কেমন হবে তা বিশ্লেষণ করে। মূল্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ গতি-প্রকৃতি সম্পর্কে একটি স্পষ্ট ধারণা দিতে সাহায্য করে। অতীত ও বর্তমানের গতি ও প্রকৃতি বিশ্লেষণ করে ভবিষ্যতের পূর্বাভাস দেওয়াও মূল্যায়ন এর অন্তর্গত।

   ৬)  শিক্ষকের গুণাবলী: শিক্ষার উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে শিক্ষকের ভূমিকা ও যোগ্যতা কতখানি সার্থক তা নির্ণয় করা মূল্যায়নের পরিধি অন্তর্গত।

 ৭) পরিমাপ: একজন শিক্ষার্থীর শিক্ষাগত পারদর্শিতার পরিমাপের সাথে তার বুদ্ধি, আগ্রহ, প্রবণতা, ব্যক্তিসত্তা প্রভৃতি মানসিক বৈশিষ্ট্যের পরিমাপও মূল্যায়ন এর কাজ।

 ৮) মূল্যায়ন ও  সু-শিখন: বর্তমানে ত্রুটিপূর্ণ পরীক্ষা পদ্ধতি শিক্ষার্থীর শিখনে অবাঞ্চিত প্রভাব বিস্তার করছে। এর সংস্কার সাধন করে কিভাবে শিক্ষার্থীদের অর্জিত জ্ঞানের সাথে দক্ষতা, ব্যবহারিক প্রয়োগ ক্ষমতা প্রভৃতি গড়ে তুলতে মূল্যায়ন সাহায্য করে যা শিক্ষার্থীর সু- শিখনে কাজে লাগে।

 মন্তব্য: আধুনিক শিক্ষাক্ষেত্রে বিজ্ঞানভিত্তিক পরিমাপক হিসেবে মূল্যায়ন পদ্ধতি বিশেষ পরিচিতি লাভ করেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে শিক্ষার্থী, শিক্ষক, পাঠ্যক্রম, শিক্ষা পদ্ধতি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রভৃতি শিক্ষা সংক্রান্ত সমস্ত বিষয় মূল্যায়নের পরিধি অন্তর্গত। মূল্যায়ন হল একটি সার্বিক প্রক্রিয়া যা শিক্ষার প্রতিটি উপাদানের গুণগত ও পরিমাণগত পরিমাপ নির্দেশ করে থাকে।


Tags - Education, Online Class

Post a Comment

Please Select Embedded Mode To Show The Comment System.*

Previous Post Next Post