Brishti Niye Bangla Kobita (বৃষ্টির কবিতা ) Bengali Poem


Brishti Niye Bangla Kobita (বৃষ্টির কবিতা ) Bengali Poem




Brishti Niye Bangla Kobita (বৃষ্টির কবিতা ) Bengali Poem

বাঙালি মাত্রেই  কবিতা প্রেমী।  আর সেই কবিতা যদি হয় বৃষ্টির দিনে বৃষ্টিকে নিয়ে, তবেই তো কোথায় নেই।  তাই আপনার জন্য নিয়ে এসেছি বেশ কিছু Brishtir Kobita যা আপনার মুহূর্তকে করবে আরো একটু ভালোলাগার।




          ।।দারুণ বৃষ্টিতে, এই বৃষ্টি নিবিড় স্নান।।
             ============================
আমার এখানে দারুণ বৃষ্টি, আকাশ ভাঙা রেশ
সত্যি কি আবেশ.........
মোর কবিতার সাথে ঘর, নারী তুই কত দূর!
আমি তবু মনে মনে তোকে, ছুঁয়ে আছি অবিরল
তোর চিবুক, ও তোর টোলপড়া গাল।।

যদি ছাতাটাকে ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে, ভেজা যেত
তোর সাথে.......
তুই যৌবনা তোর উচ্ছ্বসিত উত্তাপ, আজ
দারুণ বৃষ্টিতে, এই বৃষ্টি নিবিড় স্নান।।

আমার এখানে দারুণ বৃষ্টি, আকাশ ভাঙা রেশ
সত্যি কি আবেশ.........
কবিতায় শব্দ এঁকে এঁকে তোকে নিবিড় করে
 আরো ছুঁয়ে থাকা যায়, এ হৃদয়ে বাসনার উত্তাপ
নীরব কামনা, ও তোর টোল পড়া গাল।।

যদি ছাতাটাকে ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে, ভেজা যেত
তোর সাথে.......
স্বপনে তোকে পাই যবে, তোর হাতে  হাত,
দারুণ বৃষ্টিতে, এই বৃষ্টি নিবিড় স্নান।।

আমার এখানে দারুণ বৃষ্টি, আকাশ ভাঙা রেশ
সত্যি কি আবেশ.........
কবিতার ডোরে সবার অলক্ষ্য লোকে তুই
আর আমি, অনুভবে বাঁধা একে অপরের বুক
চুম্বনে লেখা, ও তোর টোল পড়া গাল।।


Rain Poem In Bengali


          আমরা কি বৃষ্টিতে ভিজবো না?
                               কলমে:  অনুপ সরকার

জ্যৈষ্ঠ গেলো আষাঢ় এলো, তবুও বৃষ্টি এলোনা
তবে কি আমরা, বৃষ্টিতে আর ভিজবো না ?
কোরোনার তান্ডবে মিষ্টির দোকান আবার বন্ধ হলো,
আমরা কি আর মিষ্টি খাবো না?

কি মুশকিল, মাছ কিনতে যেতে হয়, ঘুম চোখে ভোর রাতে
বলি করোনা কি ঘুম থেকে ওঠে দেরিতে ?
খাবার শেষে যদি একটু মিষ্টি দই না পড়ে পাতে,
খেয়েও হলো না খাওয়া, মনে হয় দুপুরেতে।

বলি বেসরকারি হাসপাতালে
করোনা চিকিৎসার প্যাকেজ নাকি তিন লাখে ,
করোনাতে মরার আগে সবাই এবার
মরবে বুঝি খরচা শুনে হার্ট এটাকে ।

করোনা এলো, ঝড় এলো,
শুধু বৃষ্টি এখনো এলোনা !
বর্ষাটাও ঠিক সময়ে আসেনা,
আমরা কি বৃষ্টিতে আর ভিজবো না ?

           
Brishti Niye Bangla Kobita (বৃষ্টির কবিতা ) Bengali Poem




             ।।ঠোঁট রেখে, এ ঘনঘোর বর্ষা দিনে।।
            =============================
তোমার উপহার দেওয়া ওই পানপাত্রে আমি
ঠোঁট রেখে, এ ঘনঘোর বর্ষা দিনে
তুমি কি জানো.....
কি আবেশে ভেসে বারংবার, যেন অধরে
তোমার নিবিড় চুম্বন রেখা আঁকা।।

নহ কল্পনা তুমি নারী, তবুও পানপাত্রে তুমি,
ও সরস অধর মদমত্ত কোনও
বাসনা দুর্দম..........
এখানে বৃষ্টি আজ, যদি পারতেম তোমার
সাথে ভিজে, চুম্বন রেখা আঁকা।।

কি জানি কেমন এ বৃষ্টি বিভোর
সে পরশের উষ্ণতা।।

তোমার উপহার দেওয়া ওই পানপাত্রে আমি
ঠোঁট রেখে, দিবাস্বপ্নে প্রহর ভরি
তুমি কি জানো......
আমার কল্পনা ছুঁয়ে থাকে তোমার সিক্ত দেহ
তিরি তিরি  শিহরণ, সারাক্ষণ ডুবে থাকা।।

নহ কল্পনা তুমি নারী, তবুও পানপাত্রে তুমি,
ঠোঁট রেখে, স্বপনের দেশে রচি
বাসনা দুর্দম.......
রক্তে তুফান জ্বলে নারী, তুমি  মধুরে ও মধুর
তিরি তিরি শিহরণ, সারাক্ষণ ডুবে থাকা।।


     Bristir Kobita By Rabindranath 



  আজি ঝরো ঝরো মুখর বাদল দিনে




আজি ঝরো ঝরো মুখর বাদল দিনে
আজি ঝরো ঝরো মুখর বাদল দিনে
জানি নে, জানি নে,
কিছুতে কেন যে মন লাগে না।
ঝরো ঝরো মুখর বাদল দিনে
আজি ঝরো ঝরো মুখর বাদল দিনে।




                        অবসাদে

শীতকালের বৃষ্টি, কফিকাপ আর তুই
আমার হাতে গীতবিতান, তোর গলায়.....
অরিজিৎ সিং !!
ভীষণ প্রেমের বায়না,আপছা ঘরের আয়না,
দেয়াল ফ্রেমে জলছবি তে, মুখটা দেখা যায় না।
ধোঁয়া ওঠা কাপ, ঝাপসা চোখের চশমা,
স্মৃতির পাতায় ভেসে ওঠে অবহেলার ভাবনা।
ঠান্ডা হাওয়ায় কাঁপে বিধবা রজনীগন্ধা,
অকাল বৃষ্টি শুনিয়ে যায়.........
মৃত্যুর পরোয়ানা।

       রিমঝিম বৃষ্টি ধারার সুর শুনি

সব গাছ ছারিয়ে নারকেল
গাছটাই আছে দাঁরিয়ে
কলকাতা সেতো শহর
মানুষ জঙ্গলে দিয়েছে যে ভরিয়ে|
আকাশে ধরেছে মেঘ
রিমঝিম বৃষ্টিধারার সুর
শুনিয়ে ভেজাবে আমাদের
ইঁট কাঠ পাথুরে শহরকে|
গাছ আর মাটি পায়না জল
যেটুকু গাছ বেঁচে আছে
শহরের প্রানীদের বাঁচাবে বলে,
তারাও আজ পাচ্ছে ভয়
পাছে কাটা না পরে|
সুন্দর বন হলে যেত কবে
চুরি হয়ে|
বৃষ্টি তোমার বৃত্থাই চেষ্টা
শহর আর কবে বুঝবে?


Megher Kobita


 মেঘবালিকা - Meghbalika By Joy Goswami

আমি যখন ছোট ছিলাম
খেলতে যেতেম মেঘের দলে,
একদিন এক মেঘবালিকা, প্রশ্ন করলো কৌতুহলে-
"এই ছেলেটা নাম কি রে তোর??"
আমি বললেম, "ফুসমন্তর"
মেঘবালিকা রেগেই আগুন-
"মিথ্যে কথা, নাম কি ওমন হয় কখনো??"
আমি বললেম, "নিশ্চই হয়, আগে আমার গল্প শোন!!"
সে বললো, "শুনব না যা-"
"সেই তো রাণী, সেই তো রাজা-"
"সেই তো একি ঢাল-তলোয়ার"
"সেই তো একি রাজার কুমার পক্ষীরাজে"






             তোর জন্য


জানি ঠিক পড়ে নিবি
      অভিমানের চোরাগলি
মনখারাপের দিস্তা কাগজ
      এক ছুটে আমার হবি।।

তবুও জানিস আছড়ে পড়ে
      মন কেমনের ঢেউগুলো
একলা আমার মেঘলা আকাশ
          বৃষ্টি নামায় শহর জুড়ে।।

বৃষ্টি ভেজা বাতাস মেখে
      মনের মাঝে শুধুই তুই
ছুঁতে চাওয়ার ইচ্ছা রঙীন
  স্বপ্ন সাজাই আমার চোখে।।

হাতটা রাখিস আমার মুঠোয়
     ভরসা হয়ে প্রতিক্ষন
আমার মনের অভিমানে
        সঙ্গী হয়ে ভালোবাসায়।।



  এই মেঘলা দিনে একলা ঘরে 

এই মেঘলা দিনে একলা
ঘরে থাকেনাতো মন,
কাছে যাবো কবে পাবো
ওগো তোমার নিমন্ত্রণ,
এই মেঘলা দিনে একলা
ঘরে থাকেনাতো মন,
কাছে যাবো কবে পাবো




                প্রেম মাখবো
                     অভিজিৎ মুখার্জী

আকাশে ধরেছে মেঘ
ময়ূর মেলেছে পাখা
ময়ূরপঙ্খী মন আমার
আজ তোমায় চাইছে
পাশে সখা|
তোমার জন্য বৃষ্টি আসবে
মেখম মেলে নাচবো
মিলন হবে দুটো মনের
তোমাতে আমাতে সঙ্খ নেবো|
আজ চাইবে যা তুমি
তাই-ই দিয়ে দেবো
আবদার খালি থাকবে
আমার তোমার কাছে
ফেরাবেনা বলো?
উত্তর যদি চাইছো
তবে সাহস করে শোন
আমরা দুজন আজ প্রেম মাখবো||

আরো পড়ুন, 100 Best Premer Kobita 

           স্মৃতির পটে


কোথাও বুঝি বৃষ্টি হয়ে গেল----
নাকে এলো সোঁদা মাটির গন্ধ,
ফিরতে ফিরতে চলে গেলাম ছোটো বেলার  গ্রামে--
গেলাম বলা ভুল হবে,যাই -ই তো সব সময়।

এখনো বসি ওই উঁচু বারান্দাটাতে,
ঠাকমা শোনায় পুরাণ সন্ধ্যাবেলায়--
এখনো দুপুর হলে পিয়ারা গাছে উঠি,
বড় পিয়ারাটার লোভে ওই মগ ডালে।

মা বলছে--নামবি কিনা বল?মরবি যে আজ পড়ে,
সেই থেকেই কি উঁচুতে ওঠার সাধ!!
পড়ে যাবার কথা এখন কিন্তু কেউ বলার নেই।

এখনো চোর কাঁটারা জামায় ফোটে,
এখনো শিববাড়িতে ঘন্টা বাজে---
এখনো ভোর বেলায় শিশিরের ওপর,
সূর্যের আলোর হীরে দেখে----
নাকছাবি পরার শখ জাগে।

এখনো মায়ের চাকি বেলুনের মার----
চোখের তলায় কালশিটে ফেলে।
এখনো বৃষ্টি ঝরে,দোপাটি ফুলের খসে পড়া বিকেল,
মন-মরা আলো,নিভে যাওয়া রাত,ডাকে নিভৃতে--
এখনো আমার সকাল সাঁঝে,
ওই যে বেলা ডাকে---
এখনো আমার স্মৃতির আমি  অবুঝ মনে হাঁটে।


      কালবৈশাখী ঝড়
                       জয়ন্তচক্রবর্তী 


ব্যালকনি'তে আকাশ ভাঙ্গা বৃষ্টি
গাছের ডালে ভিজছে বসে কাক
শেডের তলায় বাঁচাই আমার মাথা
ছাতা মাথায় যাচ্ছে যে জন যাক্ !

পাল্লা খোলা একফালি এককোনে
হলদে আলোয়,মুখ দেখা যায় তার
সুইচ টিপে নামিয়ে দিলো আঁধার
অংক সোজা দুষ্টু বুদ্ধি কার !

খটখটে পথ আজকে বৃষ্টি নেই
পাল্লা দুটো হাট করে তাই খোলা
এসব ছবি আমার মাথায় ঘোরে
দুষ্টু স্মৃতি আলমারিতে তোলা !

ব্যালকনি'তে দু চার খানা কাক
রঙ্গিন ছাতা নিত্য সহচর
হলুদ আলোয় বেশ কিছুকাল হলো
যায়না দেখা ,কালবৈশাখী ঝড় !



বৃষ্টিকে কেন্দ্র করে অর্থাৎ বৃষ্টিকে নিয়ে লেখা এই কবিতাগুলো আপনার ভালো লাগলে শেয়ার  না। ...
ভালো থাকুন, কবিতায় থাকুন।...
Thank You, Visit Again...


Tags - Bangla Kobita, Bengali Rainy Poem, Bengali Poem




Brishti Niye Bangla Kobita (বৃষ্টির কবিতা ) Bengali Poem Brishti Niye Bangla Kobita (বৃষ্টির কবিতা ) Bengali Poem Reviewed by Bongconnection Original Published on June 29, 2020 Rating: 5

No comments:

Wikipedia

Search results

Powered by Blogger.